আদিবাসী প্রশ্নে একটি প্রভাবশালী জাতীয় দৈনিকের বুদ্ধিভিত্তিক ষণ্ডাতন্ত্র ও একজন শুশীলের নির্লজ্জ চাটুকারিতা


আমি আমার শৈশবের কথা বলছি।
দৈনিক প্রথম আলো,
একটি জাতীয় দৈনিকের নাম যারা তখন দাবি করতো দেশের সর্বাধিক প্রচারিত দৈনিক । তখন একটা সাপ্তাহিকী দেয়া হতো নাম আলপিন। অনেক ভাল লাগতো। শৈশবের ক্ষুদ্র মগজে বুঝতাম না এর ভেতরে কি ধরণের দেশাদ্রোহীতা আর চাটুকারিতার বিষ তখন লালন করা হতো। আর সেটা বোঝার কথাও না। ক্লাস টু থ্রি পড়ুয় একটা শিশু তার কিইবা বোঝার আছে।
জনাব জাফর ইকবাল। একজন সম্মানিত শিক্ষক। একজন জনপ্রিয় সায়েন্স ফিকশন লেখক। আপনার সাথে পরিচয় আরেকটু পরে। যখন ষষ্ঠ শ্রেণীতে পড়ি। আপনাকে জানতাম না চিনতাম না। শুধু আপনার বড় ভাইয়ের প্রেমের উপন্যাস পড়ে অনেক যুবক যেমন মাতোয়ারা হয়েছিল আমরা কিশোর বয়সে আপনার লেখা পড়ে ঠিক ততটাই মাতোয়ারা হয়েছি।
বলতে পারি যখন সপ্তম শ্রেণীর ছাত্র। ছোট চাচার সাথে প্রথম বইমেলাতে আপনাকে প্রথম দেখি সেদিন আমার জীবনের সেরা দিন হিসেবে স্মৃতির পাতায় গত কয়েকদিন আগে পর্যন্ত জ্বলজ্বল করতো। আমি কোনদিন আশা করিনি আমার প্রিয় একজন লেখক এভাবে সস্তা জনপ্রিয়তা অর্জনের আশায় জাতির বিরুদ্ধে হীন চক্রান্তে লিপ্ত হবেন। ধিক!! আপনাদের মতো বুদ্ধিজীবিদের জন্য। আপনারা এই চাটুকারিতা করার পূর্বে একবার কেন ভাবার অবকাশ পাননা আপনারা শুধু বুদ্ধিকে উপজীব্য করে উদর পুর্তি করেন না । আপনাদের আরেকটি পরিচয় আছে আপনি একজন শিক্ষক । বাংলা মায়ের হাজারো সন্তান আপনাদের থেকে শিক্ষা নিয়ে ভবিষ্যতে জাতির নেতৃত্ত্ব দেবে। আপনারা সামান্য একটু স্বার্থ আর সস্তা জনপ্রিয়তার আশায় যখন এই হীন কর্মকাণ্ড করেন তখন এই শিক্ষার্থীরা যাবে কোথায়।
আমরা আমাদের ক্ষুদ্র জ্ঞানে বিশেষত আমি একজন প্রত্নতত্ত্বের ছাত্র হিসেবে খুব ভালো করেই জানি আদিবাসী কারা। আর আপনিও জানেন।

অবাক হলাম আপনি যখন মিলকে গনপিটুনিতে হত্যা করা হলো, বিরোধীদলীয় হুইপকে লাঠ্যামৃত প্রয়োগে দিনে দুপুরে রক্তাত্ত করা হলো, বিভিন্ন শিক্ষাঙ্গনে তান্ডব চালানো হলো তখন আপনি নীরব ছিলেন। এমনকি যখন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের একজন ছাত্রকে বিনা কারণে পুলিশি নির্যাতনের শিকার হতে হলো তখন আপনি মুখে কুলুপ এটেঁ বসে আঙুল চুষছিলেন। তখন আপনার কলম কোন প্রতিবাদ করেনি। কিন্তু জাতি আতংকের সাথে লক্ষ্য করলো যখন মাননীয় মন্ত্রী দীপু মণি একটা বাস্তব সত্যকে তুলে ধরলেন তখন আপনার ইগোতে লাগলো। আপনি তখন খুবই ক্ষিপ্ত হলেন, সদা চুষতে থাকা আংগুল মুখ থেকে বের করে হাতে নিলেন কলম। । লিখলেন
=)) কারো মনে দুখ দিয়ো না =)) কিন্তু মান্যবর শিক্ষক আপনি কি জানেন আপনি যাদের পক্ষে সারিন্দা বাজিয়ে সস্তা জনপ্রিয়তা অর্জনের চেষ্টা করছেন তাদের অত্যাচারে স্থানীয় বাঙালি জনগোষ্ঠী কি পরিমান সমস্যার শিকার হচ্ছে ??

জি হাঁ আপনি জানেন । জানলেও সেটা আপনার কাছে আসে যায় না। কারন আপনার লক্ষ্ জনপ্রিয়তা অর্জন।যেটি আপনি দেখিয়েছেন আমেরিকার রাস্তা থেকে দশ ডলারে গোটা ত্রিশেক সায়েন্স ফিকশন কিনে এনে তার বাঙলা অনুবাদ করে দেমের যুব সমাজকে খাওয়ানো। আর ইংরেজী শিক্ষা আমাদের দেশে আপনাদের মতো বুদ্ধিজীবিদের অবস্থানিক দৈণ্যতায় কোনদিন তেমন মাথা তুলে দাঁড়াত পারেনি পারবেও না। ফলে আপনাদের এই সব পর্দার আড়ালের চৌর্যবৃত্তি লোকচক্ষুর আড়ালে থেকে যাবে বলেই আপনার বিশ্বাস করেন। কিন্তু আপনাদের মনে রাখতে হবে। এখন ডিজিটাল যুগ । যখনকার ছেলে-মেয়েরা বড়ই বেরসিকের মতো কারো অন্যায় চোখে আংগুল দিয়ে দেখিয়ে দেয়। তারা অন্যায় হলে কাউকেই পরওয়া করে না। সস্তায় একটি আস্থার জায়গা তৈরী করা। সাবঅলটার্ন ক্রিটিক আর এডওয়ার্ড সাইদের রেপ্রিজেন্টেশন অফ দ্যা ইন্টেলেকচুয়ালস এর বিধি থেকে আমর বুঝেছি একটি বুদ্ধিভিত্তিক ষণ্ডতন্ত্র কিভাবে অস্তের ঝনঝনানি থেকেও গুরুতর হযে ওঠে। আমরা অনেকটাই উদ্বেগের সাথে লক্ষ্য করছি আমাদের দেশের এখন বুদ্ধিভিত্তিক এক ষণ্ডাতন্ত্র জন্ম নিয়েছে তার সামনে থেকে নেত্তৃত্ব দিচ্ছেন এদেশেরই অন্নে লালিত কিছু বংশবদ ভৃত্য। তারা মুখোশের আড়ালে দেশের বিরুদ্ধে অপপ্রচার চালাচ্ছে। সেই সাথে এরাই দেশের প্রধান বুদ্ধিজীবি হিসেবে দেশের সকল ক্ষেত্রে বাকবিতণ্ডায় মুখে ফেনা তুলছে।
https://i2.wp.com/www.sonarbangladesh.com/blog/uploads/HossainKhilji201104091302380159_drjafariqbal.jpg

দেশের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রকারী বুদ্ধিজীবি নামের কলংক জাফর ইকবাল

যা বলছিলাম আপনার কলামে আপনি খুব সুন্দরভাবে বলার চেষ্টা করেছেন আমাদের দেশের আদিবাসী না থাকলে আমরা আদিবাসী হিসেবে কাদের ভর্তি করলাম। আমি কখনই বলবো না আমাদের দেশে আদিবাসী নাই। আদিবাসী আছে কিন্তু আমনাদের মতো সুবিধাবাদী শ্রেণীর লালসা চরিতার্থ করার সুযোগ না থাকায় আপনারা কোনদিনই তাদের মাথা চাঁড়া দিয়ে উঠতে দেননা। আমাদের দেশের মূল আদিবাসী সাঁওতাল, শবড় কিংবা মান্দি এরা । মুখে যতোই আপনারা বর্ণবাদ বিরোধী বুলি আওড়ান আপনারা নিজেরাও খুব ভাল করে জানেন এই সাঁওতালরা তেমন শুশ্রী হয়না । আর আপনাদের মতো বুদ্ধিভিত্বিক ষণ্ডাতন্ত্রীদের সাথে গ্যালন গ্যালন মদ গেলার পর নাইট ক্লাবে নাচন কুদনের যোগ্যতাও এদের নাই। এদের পক্ষে কথা বলে তাই নষ্ট করার মতো অঢেল সময় ও আপনাদের নেই। হতে পারে আপনি একজন কম্পিউটার বিজ্ঞানী । আপনি জানেন না প্রত্নতত্ত্ব ও নৃবিজ্ঞান কি বলে। তাই বলে এই ব্যাপারে পণ্ডিতি দেখিয়ে জাতির বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রে অংশ নিতে হবে এর কোন মানে হয়না।
https://i2.wp.com/www.sonarbangladesh.com/blog/uploads/HossainKhilji201104091302380159_sultanakamal.jpg
মানবাধিকার কর্মীর লেবাছধারী সুলতানা কামাল

(যে কিনা ভিকারুননিসার ঘটনায় ফোন করলে আমাদের বলেছিল সে টেলিফোনে কোন বিবৃতি দেয় না। কিন্তু পার্বত্য ইস্যুতে ঠিকই দেশের পশ্চাতে বাশ চালতে সে তৎপর হয়েছে।)

মান্যবর শিক্ষক ও নিবেদিতপ্রাণ দেশবিরোধী মহামাণ্য শুশীল ।
জনাব আপনি আপনার কলামে রাজাকার শব্দের অর্থ করেছেন সাহায্যকারী, কিন্তু আমাদের দেশের নিযামী-গোলাম আযম কাদের সাহায্যকারী তা সবাই জানে। আমি বলবো নিযামী গোলাম আযম যদি পাকিস্তানের সাহায্যকারী হিসেবে রাজাকার হয় , হটকারীতার আশ্রয় নিয়ে পাহাড়ে উষ্কানি সৃষ্টিকারীদের সাহায্যকারী হিসেবে বাইনারী অপোজিশন ধরলে আপনিও একজন রাজাকার।
বিপরীতে আপনি আদিবাসী শব্দের অর্থ করেছেন আর সেটা ব্যবহার করে আমাদের আদিবাসী নেই এই কথা বলার ঘোর বিরোধীতা করেছেন। আসলে আপনি খুব সহজেই ভুলে গেছেন আপনাকে সবাই আমরা জানি শিক্ষক হিসেবে। আপনি শিক্ষা দেন। কিন্তু এই শিক্ষক নামের পেছনে যে একজন কুচক্রী দেশাদ্রোহী লূকিয়ে আছে সেটা নতুন করে বোঝার সময় এসেছে বোধকরি। আপনার খুব ভাল করে জানেন এখন আপনি দেশের বিরুদ্ধে যড়যন্ত্রমূলক এই কথা বলে পরবর্তিতে যদি আমাদের দেমের চট্টগ্রাম অঞ্চলকে পূর্ব তিমুর বা দক্ষিণ সুদান বানাতে পারেন তাহলে আপনাদের পোয়াবারো। কারণ একজন শিক্ষক হিসেবে আর কতোটাই বেতন পান। আর চাটুকারি কলাম লিখলে আপনারা বড়জোর পাচশো থেকে এক হাজার টাকা বোধকরি এর বেশি পাননা। যেখানে আমাদের মতো দুই দিনের ছাত্ররাও পেপারে একটা কলাম বাবদ পাচশ’ টাকাই পায়। তা্ই বুঝি আপনি রঙিন স্বপ্নে বিভোর হয়েছেন। যাকগে দেশ যদি এর বিরোধিতা করে এর ক্ষতি করে ভবিষ্যতে কলাটা মুলোটা জুটানোর একটা রাস্তা পরিষ্কার করে রাখাই যায় মন্দ কি ??

https://i0.wp.com/www.sonarbangladesh.com/blog/uploads/HossainKhilji201104091302380159_sarahhossain1.jpg
আনেক স্মার্ট ব্যারিষ্টার সারা বার্গমান, কিন্তু আনস্মাটলি দেশের সর্বনাশ করে যাচ্ছেন, দেশের বিরুদ্ধে লাগাতার অপপ্রচার ও চালাচ্ছেন।

কিন্তু জনাব আপনার ভুলে গেলে চলবে না এই ভূখণ্ডের মাটি বড়ই বেরসিক। এই মাটি কোনদিন কোন বেইমান স্বৈরাচার কিংবা দেশাদ্রোহী সে যতোবড় শক্তিশালীই হোক তাকে ক্ষমা করেছে ইতিহাস এমনটি বলেনা। কাজেই আপনার রঙিন স্বপ্ন স্বপ্নই থেকে যাবে। আপনার সামনে সময় এসেছে শোধরানোর জন্য। এই দরিদ্র অসহায় জাতি আপনাকে কম দেয়নি। আপনাকে একজন শিক্ষক হিসেবে সম্মানিত করেছে। বুদ্ধিজীবি হিসেবে সামনের কাতারে দাঁড় করিয়েছে। কিন্তু আপনি একটিবার ভাবুন আপনি বিনিময়ে কি দিয়েছেন ??? আমার মনে হয় উত্তরে কতবড় শূন্য সেটা মাপার গণিত আপনার গণিত অলিম্পিয়াডেও পাওয়া যাবে না।
আমরা বড় অবাক হয়েছি মানসিকতা কতটা নীচ হলে একজন স্বার্থন্বেষী চাকমা রাজা কি বলেছেন তার সাথে সুর মিলিয়ে আপনি দেশের সরকার, নীতিনির্ধারক মহল, দেশের আমামর জনতার দাবি, আন্তর্জাতিক আইন সব কিছুকে বুড়ো আঙুল দেখিয়ে দেশের আপামর জনতাকে নীচ বলেছেন। এই হীন বক্তব্যের জন্য আপনার উচিত মুক্তাঙ্গনে দাড়িয়ে জাতির উদ্দেশ্যে জোড় হাত করে ক্ষমা চাওয়া। কিন্তু সেইটুকু ঔদার্য আপনার নাই ।
আপনি চরম ধৃষ্টতার সাথে আমাদের সরকারকে নাতসি, নানকিং কিংবা ইসরাঈলী সরকারের সাথে তুলনা করেছেন। বলতে চেয়েছেন এরা অন্য জাতির তুলনায় নিজেদের শ্রেষ্ঠ ভাবে। আসলে আপনি বেমালুম ভুল একটি ব্যাখ্যা দিয়েছেন। যেটা হবে সার্বভৌমত্বের প্রশ্ন সেটাকে আপনি দেখিয়েছেন বা দেখাতে চেয়েছেন আমাদের শ্রেষ্ঠত্বের প্রমাণ হিসেবে। আমাদের অবাক লাগে একজন প্রথম শ্রেণীর বুদ্ধিজীবি নিজের সম্পর্কে আত্মবিশ্বাসী থাকবেন এটা ঠিক কিন্তু পুরো জাতিকে গাড়ল ভেবে বসেন কিভাবে আল্লাহ মালুম।
মো: আদনান আরিফ সালিম অর্ণব
লেখক ও কলামিস্ট
aurnabmass@gmail.com

Advertisements

2 thoughts on “আদিবাসী প্রশ্নে একটি প্রভাবশালী জাতীয় দৈনিকের বুদ্ধিভিত্তিক ষণ্ডাতন্ত্র ও একজন শুশীলের নির্লজ্জ চাটুকারিতা”

মন্তব্য করুন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s