ধর্মীয় গোঁড়ামি আর পৈশাচিক উন্মত্ততায় লালায়িত মৌলবাদ নিপাত যাক। বিশ্বমানবতা মুক্তি পাক।

যাদের নার্ভ খুব দুর্বল তারা এই খবর থেকে দূরে থাকবেন। শুরুতেই ঘটনার বিবরণ দিচ্ছি এটি এটি টেলিভিশন সংবাদের ভিডিও ধারাবিবরণী।

মেঝেতে অসহায় পড়ে মূমূর্ষ অবস্থায় কাতরাচ্ছেন একজন নারী। যার উপরে পৈশাচিক বর্বরতায় হামলে পড়েছে কিছু নরপশু। পরণের বস্ত্র ছিন্ন ভিন্ন হয়ে গেছে অনেক আগেই। একজন  একটা লাঠি দিয়ে বেদম পেটাতে থাকে। পাশে নাক দিয়ে রক্ত ঝরা অবস্থায় অসহায় কাতরাচ্ছে মহিলাটির অসহায় স্বামী। সেও জীবন মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে। Continue reading ধর্মীয় গোঁড়ামি আর পৈশাচিক উন্মত্ততায় লালায়িত মৌলবাদ নিপাত যাক। বিশ্বমানবতা মুক্তি পাক।

হায়রে মানবাধিকার, হায়রে ধর্মনিরপেক্ষতা, দুটোর মুখেই ওয়াক থু !!!!!!!!!!!!!!

একটু আগে শ্রদ্ধেয় Akm Wahiduzzaman ভাইয়ের একটা স্ট্যাটাস দেখলাম। উনি বলেছেন

রুমি নাথ একজন সাংসদ। ভালবেসে দ্বিতীয় বিয়ে করেছেন। সমস্যা হচ্ছে যাঁকে বিয়ে করেছেন তিনি মুসলমান। হিন্দু ধর্মমতে দ্বিতীয় বিয়ে করাও ঝক্কি ঝামেলার ব্যাপার, তাই রুমি নাথ বিয়ে করার আগে মুসলমান হয়ে রেশমা সুলতানা বা রাবেয়া সুলতানা কিছু একটা নাম গ্রহন করেছিলেন। ধর্ম নিরপেক্ষ ভারতের উদার মানুষ এতবড় অনাচার সইবে কেন? পিটিয়ে রুমির ভুত ছাড়িয়ে দেয়া হয়েছে। অবাক হয়ে ভাবছিলাম, শর্মিলা ঠাকুর মনসুর আলী খান পতৌদীকে বিয়ে করার জন্য মুসলমান হয়েছিলেন, হিন্দু ধর্মে দ্বিতীয় বিয়ে করার অপশন না থাকায় নায়ক ধর্মেন্দ্র হেমা মালিনীকে বিয়ে করার জন্য মুসলমান হয়েছিলেন। আমাদের দেশে ফেরদৌসী মজুমদার, রামেন্দু মজুমদারকে বিয়ে করে জীবন পার করে দিলেন। আমার অত্যন্ত প্রিয় Manosh‘দা Bonna ভাবীকে বিয়ে করে সুখের জীবন পার করছেন।

যাঁরা বিয়ে করবেন, তাঁদের সুখের কথা না ভেবে ধর্মের ঢোল বাজানো এরা কোন হরিদাস পাল? এই ধরনের ঘটনা সংক্রামক। আজ পাশের দেশে ঘটেছে, কাল বাংলাদেশে ঘটবে। বাংলাদেশের মৌলবাদীদের হাতে এমনভাবে কেউ নিগৃহিত হবার আগেই ‘বিশেষ বিবাহ আইন’ কার্যকর করার জোর দাবী জানাচ্ছি। Continue reading হায়রে মানবাধিকার, হায়রে ধর্মনিরপেক্ষতা, দুটোর মুখেই ওয়াক থু !!!!!!!!!!!!!!

হুমায়ুন আহমেদ, ঘেটুপুত্র কমলা আর কিছু অজানা আশংকা পর্ব ০৩

এখন দেশের সবেচন জনগণের পক্ষে আমার প্রশ্ন হচ্ছে সমকামী জীবন নিয়ে এই মুভিটি বাংলাদেশের মানুষের প্রচলিত সমাজ সংস্কৃতির সাথে কতটুকু খাপ খায়। বর্তমান প্রেক্ষাপটে এধরনের উদ্ভট কাহিনী নির্ভর চলচিত্রের যৌক্তিকতা কতটুকু। হয়তো অনেক তথাকথিত প্রগতিবাদী বলবেন মানব সমাজের সবচেয়ে বড় কাজ চোখের পর্দা টেনে অন্যায় আড়াল করা। আর অপরাধকে লূকিয়ে রেখে তার নিরাপদ বসতস্থান নিশ্চিত করা। আমি বিষয়টি বিশ্লেষণ করার আগে বলবো আপনারা এই সকল অপরাধ জনগণের সামনে এনে প্রচার করতে চাইছেন তখন এর বাইনারী অপোজিশান হিসেবে ভাল-মন্দ, ঠিক-বেঠিক দুটি দিকই বিশ্লেষণ করে দেখতে হবে। যেটি দেখাতো দুরে থাক এর বিরুদ্ধে কেউ মুখ খুললে তার মুখ বন্ধ করার সার্বক্ষণিক চিন্তায় মগ্ন হতে দেখা গেছে। Continue reading হুমায়ুন আহমেদ, ঘেটুপুত্র কমলা আর কিছু অজানা আশংকা পর্ব ০৩

হুমায়ুন আহমেদ, ঘেটুপুত্র কমলা আর কিছু অজানা আশংকা পর্ব ০২

আমি হুমায়ুন আহমেদের মতো একজন নন্দিত কথাসাহিত্যিকের ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে কিছু বলার সাহস দেখাবো না। কারণ এটি পাঠকরা এবং আমি নিজেও কমবেশি জানি। প্রতিক্রিয়া, অভিরুচি ও মতামত প্রত্যেকের যার যার মতো রয়েছে। শুধু উনি আর তাঁর বিজ্ঞ কলকৌশলীদের স্মরণ করিয়ে দিতে চাই। মানুষ অনুকরণ প্রিয় তাদেরকে অনুকরণ করার মতো একটি অস্বাভাবিক বিষয়ের সম্মুখীন না করলেই কি নয় ? আপনি তো এর আগেও অনেক মুভি বানিয়েছেন, সেগুলো কিন্তু জনপ্রিয়তার দিক থেকে খুব একটা্ খারাপ ছিল না। আজ আপনি এমন একটি স্থানে চলে গেছেন যেখানে আপনার নামই একটি ব্রাণ্ড। এই ধরণের একটি মুভি আজকের দিনে তৈরী না করলেই কি নয়।
স্মরণ করিয়ে দিতে চাই ২০০২ সালের দিকে কুখ্যাত সিরিয়াল কিলার ‘টেড বান্ডি’ এর জীবনের উপর নির্মিত হলিউডি মুভি ‘টেড বান্ডি’ মুক্তি পায়। Continue reading হুমায়ুন আহমেদ, ঘেটুপুত্র কমলা আর কিছু অজানা আশংকা পর্ব ০২

হুমায়ুন আহমেদ, ঘেটুপুত্র কমলা আর কিছু অজানা আশংকা পর্ব ০১

Imageবর্তমানযুগে কোন চলচিত্র বা গানের নামের সাথে সাথে কয়েকটি শব্দ লাগাতার চলে আসে তা হচ্ছে হিট, ফ্লপ, সুপারহিট, সুপারফ্লপ, সুপার ডুপার হিট প্রভৃতি। আসলে এখনকার কর্পোরেট দুনিয়ার মারপ্যাচে একটি গান বা চলচিত্র নির্মাণে প্রাথমিকভাবে টপিক নির্বাচনের ক্ষেত্রে এই বিষয়গুলোকে প্রথম গুরুত্ব দেয়া হয়। একটি গানের কথা মিলিয়ে বলতে গেলে গেল কয়েকটি মাসের মিডিয়াজগতকে কোলাভেরী ডি এর মাস বলা যায়। রাস্তাঘাটে বেড়াতে বেরুলে, শপিংমলগুলোতে, বাজারের মধ্যে এমনকি ফ্লাটের বারান্দায় চেয়ারে একটু আয়েশি ভঙ্গিতে গা এলিয়ে দিয়ে একটু চোখ মুদলে কানে ভেসে আসতে থাকে ‘ইয়ো বয়েজ, আই অ্যাম সিং সং, সুপ সং, ফ্লপ সং, হোয়াই দিজ কোলাভেরি কোলাভেরি কোলাভেরি ডি। একটি ট্যাংলিশ(তামিল+ইংলিশ)গানের এই জয়যাত্রায় আমাদের কি আসে যায় ? আসলে বলতে চাইছি দেশের নন্দিত কথা সাহিত্যিক হুমায়ুন আহমেদের নতুন সিনেমা ঘেটুপুত্র কমলা প্রসঙ্গে। মুভি রিভিউ বা এই জাতীয় লেখালেখি আমার অভ্যাসের মধ্যে নেই।হিন্দি সিনেমা থ্রি ইডিয়টস এর একটি রিভিও লেখার চেষ্টা করেছিলাম, অনেকটা মনের থেকে লেখা সেই রিভিউটি পত্রিকায় ছাপাও হয়ে যায়। আজকে আমার এই লেখার উদ্দেশ্য হুমায়ুন আহমেদের মতো নন্দিত কথা সাহিত্যিকের মুভির রিভিও করা না। সেই দু:সাহসও দেখানো আমার উচিত হবে না। শুধু কিছু বিষয় আমার কাছে মনে হয়েছে সমস্যায়িত যেগুলো তুলে ধরার প্রয়োজন মনে করছি। Continue reading হুমায়ুন আহমেদ, ঘেটুপুত্র কমলা আর কিছু অজানা আশংকা পর্ব ০১

কেমন আছেন নবাব সিরাজউদ্দৌলার বংশধররা ?

স্বাধীনতার+সূর্য+ডোবার+দিন+(2)এটা আমার লেখা নয়; দৈনিক মানবজমিন থেকে কপিপেস্ট করা পোস্ট।  ভাগীরথী থেকে বুড়িগঙ্গা। মুর্শিদাবাদ থেকে ঢাকা। রাজকীয় হীরাঝিল প্রাসাদ থেকে ঢাকা শহরের এক ছোট্ট ফ্ল্যাটে বসবাস করছেন নবাব সিরাজউদদৌলার নবম বংশধরেরা। একদা বাংলা, বিহার, ওড়িশার আকাশ বাতাস কেঁপে উঠতো যাদের হুংকারে, ভাগিরথীর তীরে মুর্শিদাবাদ নগরে আলোকোজ্জ্বল মহল সর্বদা সরগরম থাকতো যে দাপুটে নবাবের পদচারণায়  সুবে বাংলার সেই শেষ স্বাধীন নবাব সিরাজউদদৌলার বংশধরেরা এখন ঢাকা শহরে বসবাস করছেন লোকচক্ষুর অন্তরালে, নীরবে নিভৃতে। অনেকেই তাদের খবর জানে না, অনেকেই খবর নেয় না। নবাব সিরাজউদদৌলা বাঙালি ছিলেন না। বাঙালির আপন ছিলেন, বাঙালির দরদি ছিলেন। তিনি বাংলার ছিলেন না কিন্তু বাংলার শেষ স্বাধীন নবাব ছিলেন। ভালবাসতেন বাংলাকে, বাঙালিকে। ১৭৫৭ সালের ২৩শে জুন পলাশীর প্রান্তরে সিরাজের পরাজয় এবং ২রা জুলাই ঘাতকের হাতে তার প্রাণ হারানোর মধ্য দিয়ে বাংলার স্বাধীনতার সূর্য অস্তমিত হয়ে যায় বহুকালের জন্য।   Continue reading কেমন আছেন নবাব সিরাজউদ্দৌলার বংশধররা ?

নারী ও শিশু অধিকারের নেপথ্যকথা

Woman Being Kidnapped And Abusedআজ পশ্চিম যেখানে ভারত পাকিস্তান কিংবা এশিয়া ও আফ্রিকার তথাকথিত তৃতীয় বিশ্বের দেশ গুলোতে শিশুদের অধিকার প্রতিষ্ঠা আর নারী নির্যাতনের বিরুদ্ধে লম্বা চওড়া শ্লোগান দিয়ে মুখে ফেনা তুলছে সেখানে খোদ আমেরিকা বা বিভিন্ন ইউরোপের দেশগুলোতে নারীদের অধিকার মারাত্মকভাবে হরণ করে নেয়ার পাশাপাশি শিশুদের জীবন দূর্বিসহ এক ঘুর্ণিপাকের মধ্যে পড়ে আছে যার খবর হয়তো আমাদের অনেকের ই অজানা। বাংলাদেশের পাশাপাশি পৃথিবীর বেশ কয়েকটি বিখ্যাত দেশের নামকরা ব্লগ গুলোতে আমার বিচরণ বহুদিনের। আর বর্তমান ভার্চুয়াল বিশ্বে সংবাদ পত্রের বদলে এই ব্লগই হয়ে উঠেছে সমাজের দর্পণ, যেকোন সংস্কৃতির স্পষ্ট প্রতিনিধিত্বকারী।

আমি আমার এই লেখাতে তুলে ধরতে চাইছি একটি স্টেডিয়ামে যখন ডে নাইট খেলা চলে তখন ফ্লাড লাইটের আলোয় পুরো মাঠ আলোকিত হয়ে থাকলেও ঠিক ফ্লাড লাইটের নিচের অংশই যেমন মারাত্ত্বক অন্ধকারচ্ছন্ন থাকে তেমনি মুখে কথার তুবড়ি উঠলেও এশিয়ার বাইরে কিভাবে নারী নির্যাতন আর শিশুদের প্রতি অবহেলা চরম পর্যায়ে পৌঁছেছে। আমরা যারা প্রত্নতত্ত্ব বা নৃবিজ্ঞানের ছাত্র তারা দেখেছি কিভাবে পশ্চিমারা তাদের আধিপত্য বিস্তারে বস্তুবাদকে গ্রহণ করেছে আর তার আলোকে একটি বিষয় কিভাবে অবিনির্মাণ সম্ভব তা নিয়ে খোদ পশ্চিমা বিশ্বেই মতভেদ স্পষ্টত লক্ষ্যণীয়। আমরা দেখি পশ্চিমারা আধুনিকতার ধারণার প্রকাশে একদিকে বেকন দেকার্তের দর্শনের আশ্রয় নিয়ে মিথ লিজেন্ড ও লিখিত উপাত্তকে ইতিহাসের পাতা থেকে খারিজ করে দিচ্ছে। Continue reading নারী ও শিশু অধিকারের নেপথ্যকথা

নারী ও শিশু অধিকার প্রশ্নে বিশ্বে প্রচলিত নীতির নেপথ্যের কিছু কথা (পর্ব-০১)

আজ পশ্চিম যেখানে ভারত পাকিস্তান কিংবা এশিয়া ও আফ্রিকার তথাকথিত তৃতীয় বিশ্বের দেশ গুলোতে শিশুদের অধিকার প্রতিষ্ঠা আর নারী নির্যাতনের বিরুদ্ধে লম্বা চওড়া শ্লোগান দিয়ে মুখে ফেনা তুলছে সেখানে খোদ আমেরিকা বা বিভিন্ন ইউরোপের দেশগুলোতে নারীদের অধিকার মারাত্মকভাবে হরণ করে নেয়ার পাশাপাশি শিশুদের জীবন দূর্বিসহ এক ঘুর্ণিপাকের মধ্যে পড়ে আছে যার খবর হয়তো আমাদের অনেকের ই অজানা। বাংলাদেশের পাশাপাশি পৃথিবীর বেশ কয়েকটি বিখ্যাত দেশের নামকরা ব্লগ গুলোতে আমার বিচরণ বহুদিনের। আর বর্তমান ভার্চুয়াল বিশ্বে সংবাদ পত্রের বদলে এই ব্লগই হয়ে উঠেছে সমাজের দর্পণ, যেকোন সংস্কৃতির স্পষ্ট প্রতিনিধিত্বকারী। আমি আমার এই লেখাতে তুলে ধরতে চাইছি একটি স্টেডিয়ামে যখন ডে নাইট খেলা চলে তখন ফ্লাড লাইটের আলোয় পুরো মাঠ আলোকিত হয়ে থাকলেও ঠিক ফ্লাড লাইটের নিচের অংশই যেমন মারাত্ত্বক অন্ধকারচ্ছন্ন থাকে তেমনি মুখে কথার তুবড়ি উঠলেও এশিয়ার বাইরে কিভাবে নারী নির্যাতন আর শিশুদের প্রতি অবহেলা চরম পর্যায়ে পৌঁছেছে। আমরা যারা প্রত্নতত্ত্ব বা নৃবিজ্ঞানের ছাত্র তারা দেখেছি কিভাবে পশ্চিমারা তাদের আধিপত্য বিস্তারে বস্তুবাদকে গ্রহণ করেছে আর তার আলোকে একটি বিষয় কিভাবে অবিনির্মাণ সম্ভব তা নিয়ে খোদ পশ্চিমা বিশ্বেই মতভেদ স্পষ্টত লক্ষ্যণীয়। আমরা দেখি পশ্চিমারা আধুনিকতার ধারণার প্রকাশে একদিকে বেকন দেকার্তের দর্শনের আশ্রয় নিয়ে মিথ লিজেণ্ড ও লিখিত উপাত্তকে ইতিহাসের পাতা থেকে খারিজ করে দিচ্ছে। Continue reading নারী ও শিশু অধিকার প্রশ্নে বিশ্বে প্রচলিত নীতির নেপথ্যের কিছু কথা (পর্ব-০১)

ঢাকার চারশ’ বছর উদযাপনে ইতিহাসের পাতা থেকে হারিয়ে গেছে আরও চারশ’ বছর

ইতিহাস গ্রন্থের অনুপস্থিতি, লিখিত সূত্রের অপ্রতুলতা, যথাযথ গবেষণার অভাব আর প্রাপ্ত প্রত্নতাত্ত্বিক নিদর্শনগুলোকে ইতিহাস বিনির্মাণের ক্ষেত্রে ব্যবহার না করাতে আমাদের আজকের রাজধানী ঢাকার অতীত গৌরব অনেক ক্ষেত্রে মলিন হয়ে যাচ্ছে। অতি সাম্প্রতিককালে বাংলার তথা আমাদের রাজধানী ঢাকার ইতিহাস নিয়ে যেসব প্রত্নতাত্ত্বিক তথ্যপ্রমাণভিত্তিক বাস্তবসম্মত গবেষণা করা হচ্ছে তাকে অনেকটা বৃদ্ধাঙুলি প্রদর্শন করে প্রচলিত ভ্রান্ত ধারণাকেই প্রাতিষ্ঠানিকভাবে দাঁড় করাতে চেষ্টা করা হচ্ছে। এখানে বলা হচ্ছে সতের শতকের গোড়ার দিকে মোগলদের পূর্ববাংলা দখল ও ঢাকায় রাজধানী স্থাপনের মধ্য দিয়েই গৌরবের নগরী ঢাকার যাত্রা শুরু। ভ্রান্ত হলেও এই প্রচলিত ধারণাকে উপজীব্য ধরে সঠিক ইতিহাস বাদ দিয়ে রাজধানী ঢাকার চারশ’ বছর উদযাপনের এক উত্সবমুখর পরিবেশ সৃষ্টি করা হয়। Continue reading ঢাকার চারশ’ বছর উদযাপনে ইতিহাসের পাতা থেকে হারিয়ে গেছে আরও চারশ’ বছর

ত্রিশ লক্ষ শহীদের রক্তের ঋণ ও স্বাধীনতার চারদশকের প্রাপ্তি

আজ আমরা “বাঙলাদেশী” কারণ আমরা স্বাধীন, আমাদের আছে এক চিলতে স্বাধীন ভূখণ্ড যার নাম বাংলাদেশ। আছে লাল সবুজের স্বাধীন পতাকা যাকে নিয়ে আমাদের গর্ব।কিন্তু আমরা নিজেরাই জানিনা কেন বা কিসের জন্য আমাদের এই গর্ব। আজ চল্লিশ বছরে পা দিয়েও আমার কি অর্জন করেছি তা কি একবারের তরেও ভেবে দেখার অবকাশ পান আমাদের রাজনীতিবিদগণ? আসলে আমাদের দেশে চলছে ক্ষমতা বদলের একটা মিউজিক্যাল চেয়ারের গেম শো। যাতে সেই কুশীলব যার হাতে থাকবে ক্ষমতার ঝাণ্ডা। আর সে ইচ্ছাখুশি ডাণ্ডাপেটা করার বৈধতা পাবে বাকিদের। আসলে আমি বলতে চাচ্ছি আজ স্বাধীনতার চারটি দশক পার করার পরেও কি আমাদের রাজনৈতিক দলগুলো তাদের সত্যিকার অবস্থান পরিস্কার করতে পেরেছে?? Continue reading ত্রিশ লক্ষ শহীদের রক্তের ঋণ ও স্বাধীনতার চারদশকের প্রাপ্তি