প্রত্নতাত্ত্বিক ঐতিহ্যের বাণিজ্যিক সম্ভবনা ও চলচিত্র ভাবনায় নতুনত্ব।


চলচিত্র দৃশ্যপটে প্রত্নস্থান কান্তজিউর মন্দির

প্রত্নতত্ত্ব বিভাগে ভর্তি হওয়ার পর থেকেই একটা বিষয় খারাপ লাগতো। আর্কিওলজি বালার পর পর পাব্লিক বলতো আর্কিটেকচার নাকি। কিংবা  দেখেছি নাম শোনা মাত্র মানুষ নাক কুঁচকে মুখটা ঈষৎ বাকিয়ে বলে এটা কি ??

পরে শুধুই ভাবতাম তোরা যে যা বলিস ভাই!! যেমনে হোক প্রত্নতত্ত্বের জন্য প্রচারণা চাই। এখন অনেক ভালো লাগে যখন দেখি ফেসবুকে খোলা কয়েকটি গ্রুপ আর পেজের হাজার হাজার লাইক-কমেন্ট জানান দেয় আমরা প্রত্নতত্ত্ব পড়ি।  তারপর আগ্রহী হয়েছিলাম কিভাবে এদেশের মিডিয়ায় প্রত্নস্থানগুলোকে জনপ্রিয় করে তোলা যায়। পাণ্ডিত্যের মোহে অন্ধ হয়ে প্রত্নস্থানগুলো কখনই পাদপ্রদীপে না আসুক এমনটি কখনো চাইতাম না। তাই একটু অন্যরকম করেই ভাবতে শুরু করি। এখন সময় পাল্টেছে কিছুদিন পর পর আমদের প্রত্নস্থানগুলোর উপর বেশ কিছু প্রামাণ্য চিত্র দেখানো হয় টেলিভিশন চ্যানেলগুলোতে। পত্রপত্রিকাতেও অনেক ফিচার আসে। কিন্তু ভারতীয় বাংলা আর হিন্দির সাথে দ্বৈরথে দিনের পর দিন পিছিয়ে পড়েছে আমাদের মিডিয়া। তার লেজ ধরে চলচিত্রেও আজ দৈন্যদশা। তাই চলচিত্র ভাবনায় নতুনত্ব এখন সময়ের দাবি । তাই এতোদিন শুধুই
স্বপ্ন দেখতাম একদিন বাংলাদেশের নাটক চলচিত্রগুলোও ভারতের মতো আর্কিলজিক্যাল সাইট গুলোকে গুরুত্ব দেবে। এ ক্ষেত্রে রথ দেখা ও কলা বেচা দুটোই সম্ভব।  সিনেমাটোগ্রাফির জন্য অনন্য সাধারণ দৃশ্যপট যেমন তৈরি করা সম্ভব হবে তেমনি আর্কিওলজিক্যাল সাইট গুলোর প্রমোশনে পর্যটন বিকাশ হবে।  ভালবাসার রঙ মুভিটার টেলার দেখে মনে হলো সত্যি বাংলাদেশের চলচিত্র এগিয়ে যাচ্ছে। নতুন চলচিত্র ভালবাসার রঙ এ রেড ক্যামেরা ব্যবহার করা দেখে তো অনেকটা তাই মনে হয়।

আমির খানের “ফানা”  সিনেমাটা দেখার পর ভাবতাম ওরিব্বাপস বাংলাদেশের কোনো সিনেমাতে যদি পাহাড়পুর, মহাস্থানগড়, কান্তজীর মন্দির, উয়ারী-বটেশ্বর, ময়নামতি কিংবা এই রকম আরো কিছু দেখাতো। তাহলে আমাদের দেশের চলচিত্রের ঐ প্রচলিত ধারার এফ ডিসির বৃষ্টিবিলাস, নুহাশ পল্লীর বাশঝাড় আর খতিবের বাড়ির পুকুর থেকে বেরিয়ে আসা সম্ভব হতো। কিন্তু আশা ছিল অনেকটাই দুরাশা। মাঝে মাঝে ভাবতাম দক্ষিণ ভারতের সিনেমার মতো এখানেও যেভাবে বালির বস্তা সদৃশ অভিনেত্রীরা অভিনয় করেন। এরা যদি প্রত্নস্থানে গিয়ে নর্তক-কুর্দন শুরু করে তাহলে ফর্মেশন প্রসেসে একদিন পুরো সাইট মাটির নিচে বসে যাবে মাইরি। নতুন এই চলচিত্র ভালোবাসার রং ঐ ধারণা থেকেও দর্শকদের শাপমুক্তি ঘটাতে সক্ষম হয়েছে। বিশেষ করে গৎবাধা এক নম্বর নায়ক আর পরিশীলিত আটার বস্তা বদলে ফেলে এখানে যুক্ত নতুনত্ব সত্যি সাধুবাদ পাওয়ার দাবিদার।

বিশেষ করে বিগ বাজেটের এই সিমেনার গতি প্রকৃতি নিয়ে একজন কুশলীর সাথে আজ অনেক্ষণ কথা হলো। পরে জানলাম এখানে কয়েকটা প্রত্নস্থানকে একটা গানের মাধ্যমে হাইলাইট করা হয়েছে। পরে উনি ইউটিউব  থেকে নিচের লিংকটা দিলেন যেখানে স্পষ্ট দেখলাম কান্তজীউর মন্দিরকে হাইলাইট করা হয়েছে। প্রথমত ভাবছিলাম এরা পাহাড়পুর বা ষাটগম্বুজকে আনতে পারে। পরে কান্তজিউর মন্দির দেয়াতে ভালোই হয়েছে। কারণ বিশ্বঐতিহ্যের পাহাড়পুর বা ষাটগম্বুজ তো এমনিতেই পাদপ্রদীপের নিচে আছে।  লিংকটাতে গেলে ভিডিও দেখা যাবে।  চলচিত্রে এই ধরণের নতুনত্ব সত্যি সাধুবাদ পাওয়ার যোগ্য। বিশেষ করে যে সিনেমা এখনো বের হয়নি তা নিয়ে বেশি কিছু না বলাই ভালো। সিনেমা বের হওয়ার পর ভাবা যাবে সত্যি এর ভেতরে কি আছে।

চিরাচরিত আবহমান বাংলার দৃশ্যপট

আমরা সত্যি স্বপ্ন দেখি বাংলাদেশেও বিশ্বমানের চলচিত্র তৈরি হবে। ঐ সব বুড়োদের যুক্তির সাথে আমি একাত্ম নই। আমি নতুনের পক্ষে। আমি কখনো ঐ সব স্বর্ণালী সাদাকালো নিয়ে লাফালাফি করতে আগ্রহী নই। আমি চাই বিশ্ব এগিয়েছে এগিয়ে যাক আমাদের দেশ। নতুন নতুন প্রযুক্তির ব্যবহার হোক। দর্শক বাংলাদেশী বাংলা সিনেমা দেখুক। ঐভাবে স্টার জলসায় চোখের জল নাকের জল এক না করুক। তাই ভালবাসার রঙ সহ অনাগত প্রতিটি অত্যাধুনিক সিনেমার নির্মাতা, পরিচালক ও অভিনেতা অভিনেত্রীদের জন্য নিরন্তর শুভকামনা রইলো।

Advertisements

3 thoughts on “প্রত্নতাত্ত্বিক ঐতিহ্যের বাণিজ্যিক সম্ভবনা ও চলচিত্র ভাবনায় নতুনত্ব।”

  1. এটা কান্তাজির মন্দির না পুঠিয়ার রাজবাড়ির (রাজশাহীতে) পাশে থাকা মন্দির? গানের দৃশ্যটা টিভি-তে একটুখানি দেখে মনে হলো পুঠিয়ার মন্দির।

    কনফার্ম কইরেন। লেখা ভালো লাগছে।

মন্তব্য করুন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s