এবং অতঃপর ইনসমনিয়া


০১.
স্মৃতির আকাশে স্বপ্নের রঙিন পাখায় ভর করে কতগুলো পায়রা ওড়ে খেয়ালি আকাশ তার হিসেব রাখেনা ঠিক যেমনি বর্ষান্তে প্রখর রোদ্দুর বারিপাতের শেষ বিন্দুটি পর্যন্ত শুষে নেয়। আমার এক একটি অসহ্য যন্ত্রণার রাত্রিশেষে ক’ফোঁটা অশ্রুগড়িয়ে পড়লো কিংবা ঘাসের ডগায় কতবিন্দু শিশির মুক্তোর মতো জ্বলজ্বল করে বয়ে আনলো সুন্দর সকাল তারও কোনো হিসেব থাকেনা স্যাটেস্টিক্সে। আসলে ভাবনাগুলোর বাস্তব কোনো প্রকরণ নেই বলেই কাব্যভাষায় অহর্নিশ ভাষা খুঁজে ফেরে নিরন্তর কিছু দু:খবিলাস। কোন কোন বৃষ্টি কাকে ভেজালো সেটা মূখ্য নয় একসময় আকাশের লেহন তৃষ্ণা জুড়াতে তাকে উড়ে যেতেই হয়। তবুও ঐ সাময়িক প্রশান্তি, টিনের চালে টুংটাং শব্দ, রেলিং থেকে বাড়িয়ে দেয়া হাতে কিছুটা স্নিগ্ধ আবেশ খেয়ালি মনকে দেয় চিন্তার খায়েশ। এমনি কিছু অসময়ের বৃষ্টি, কিছু রাত্রির শেষ শিশির আমাদের স্মৃতির কড়িকাঠে বেশ শক্তপোক্ত আঁচড়ও কেটে যায়। সেগুলোর দগদগে ক্ষত কাউকে আজীবন পোড়ায়, কারো সামনে ধরা দেয় নিছক কাব্য সাধনার অনুসঙ্গ হয়ে।
০২.
ঐ দূর কাশবনে হিমশীতল কষ্টে টুপ টাপ করে যে শিশিরগুলো ঝরে তার শব্দ শুনতে উতলা হয়ে খুলে রাখি আমার মন খারাপের জানালা। অপেক্ষার নৈনিতালে চম্পক সারিন্দা বাজিয়ে তুমি এসেছিলে সেদিন আমার আলিশায়, ঠিক এতটুকু প্রত্যাশার মিঠে রোদ্দুর নিয়ে। বাকিটুকু তোমার গল্প যেখানে অল্প কিছু আবেগ, একটু মায়ায় স্বস্তির পরশ। একান্ত ভালোলাগার ঐ ইতিকথা আজো বাজিয়ে চলেছে মনের সারিন্দা। লিখতে লিখতে শেষ হলো কবিতার খাতা, ফুরিয়ে গেলো কলমের কালি তারপর ধরেছি কম্পিউটার। তবুও শেষ হয়নি মহাকাব্যের সেই পঙ্কতিগুলো। শব্দের পর শব্দে বোনা সে মায়াজাল, লাইনের পর লাইনে সাজানো স্বপ্নময় ইন্দ্রজাল, একাট্টা হয়েছে সবগুলো, শুধু তোমাকে নিয়েই এ কথোকথা, পুরোটা নির্ভেজাল।
০৩.
কুয়াশা ঢাকা মাঝরাতের কিছু মোহিনী ইশারাকে হুট করে অস্বীকার করতে পারেনা এই কংক্রিটের জঞ্জাল সবার প্রিয় শহর ঢাকা। শীতের সুনশান নীরব রাজপথ কানে কানে কি যে বলতে চায়, বুঝিনা তার কিছুই !!! ঢিমে তালে জ্বলতে থাকা কিছু সড়কবাতি আর তার ঠাণ্ডায় জমে যাওয়া খাম্বাগুলো রাতজাগা পাখির ডানা ঝাপটানোর সাথে মিতালি করে সুর তোলে মনের পিয়ানোতে। উদাস হয় মন, হারিয়ে যাই আমার আমিত্ব থেকে। মাঝে মাঝে শীতের কাঁপুনি তোলা রাতেও শুধু এককাপ বেশি চিনি দেয়া কফি তারপর জানালার গরাদে মাথা ঠেকিয়ে পার করে দিই অনেকটা সময়। মনে বয়ে যায় চিন্তার ঝড়, সেগুলোকেই ঢেলে সাজাই কিবোর্ড ঠুকে। ব্যাস কত সুন্দর সুন্দর কিছু লেখা দাঁড়িয়ে যায় নিজের অজান্তে।

Advertisements

মন্তব্য করুন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s