প্যান্টের উপর পরা আন্ডারওয়্যার আর চলচিত্রে আরোপিত সেন্সর এ একই কথা


এই পোস্টে এডকৃত ভারতীয় মিউজিক ভিডিওগুলা দেইখ্যাই খ্যাক কৈরা ওঠার কিসু নাই। পাশাপাশি আরেকটা কথা বৈলা রাখি আমি বরাবরই সেন্সরের বিপক্ষে। সো কোনোদিনই শ্লীল অশ্লীলের ধার ধারিনা যেখানে আমার কাছে মূখ্য প্রসঙ্গ বাংলাদেশ। তবে সবথেকে বড় কথা এই গানটা বানাইতে তেমন কেনো আহামরি ক্যামেরা কিংবা ফ্রেমিং ব্যবহৃত হয়নাই তারপরেও তার চিত্রায়নটা যথেষ্ঠ আগ্রহোদ্দীপক। যথেষ্ঠ সুবিধা থাকার পরেও আমাদের দেশে কেনো এর থেকে উন্নত কোয়ালিটির সিনেমার গান কিংবা সিনেমার চিত্রায়ন হচ্ছে না। এক অগ্নি যেটা করে দেখিয়েছে সেটা আমাদের এগিয়ে যাওয়ার স্মারক হলেও আমরা এখনো পিছিয়ে আছি প্রায় ১২ বছর।

আজ থেকে বছর পনেরো আগে দেবাঙ্গি ছবিতে Divya Bharti যে স্টাইলে উদ্যাম ঝাঁকি দিয়ে গেছে অ্যাসি ডিওয়ানেগি কোহি নেহি গানটাতে। আমরা আজো সেই ঝাঁকুনি কাটাইয়া উঠতে পারি নাই। কিন্তু এরপরেও আরো কিছু ঘটছে সেটা আমাদের খেয়ালে নাই। আমাদের পরিচালক ভাইয়েরাও মনে করেন যতো ঝাঁকি ততো নেকী, ঐদিকে শাবনুর, মৌসুমী, পূর্ণিমা, ববি, আঁচল, সাহারা, অপু, ববি, রুবিনা, পরী, বিন্দু, মাহী আপারাও সর্বাঙ্গ দুলাইতে ব্যর্থ হৈয়া ঝাঁকুনিই দিতে থাকেন। এতো ঝাঁকুনিতে স্টেজে ভূকম্পন উঠলেও দর্শকদের সাময়িক সুড়সুড়ি আসে মাত্র। তা দর্শকের মনে একবিন্দু ঝাঁকুনি দিতে পারে না।

তাইতো দিনের পর দিন সিনেমা হলের দর্শক কমেেছে, নিম্নমুখী মানের পরিচালকগণ বাধ্য হয়ে তৈরি করেছেন বি, সি, ডি গ্রেডের চলচিত্র। আর প্রথম আলোর মতো পত্রিকা প্রচার করেছে অশ্লীল চলচিত্রে বাংলাদেশের বাজার সয়লাব। হে ধর্মপ্রাণ বাঙ্গালি সম্প্রদায় আপনারা মা দূর্গার আশির্বাদ চাইতে গেলে সানি লিওনের মুভি দেখুন। আপনি সাচ্চা ঈমানদার মুসলিম হৈতে গেলে কখনোই দাবাং চলচিত্রের পোস্টারে কর্ণপাত কৈরেন না দৃস্টি দিতে হয় আমাদরে সিনেমা পাতায় সানি লিওন, পুনম পাণ্ডে, মল্লিকা শেরাবদ, শালিন চোপড়া দেখুন। আর নিচের এই কামেলী গানের কামাল দেইখা কান চুলকান, নাক চুলকান হায় এই গানটা আরেক প্যারা হৈলো না ক্যান। তাইলে আরো কত্ত কী দেখতে পাইতাম।

অনলাইনে প্লেবয় মিস স্কুল, মিস কলেজ, মিস ইউনিভার্সিটি দেখুন। প্রয়োজনে মিস সোশ্যাল দেইখ্যা পুরোপুরি সামাজিক হউন। কিন্তু এই ধরণের অপপ্রচার আর সেন্সর কেন্দ্রিক জটিলতা আমাদের চলচিত্র শিল্পে ধ্বস নামানো বাদে আর কোনো উন্নতি ঘটাতে পারে না। তাই আবারো বলছি চলচিত্র শিল্পকে বাঁচাতে হলে সবার আগে সেন্সরের ন্যাক্কারজনক ঘটনা বাদ দিন। ভারতীয় চলচিত্র আমদানি বন্ধ করুন। আর এখানে চলচিত্র গুলোতে প্রয়োজনে গ্রেডিং সিস্টেম চালু করুন। কখনোই সেন্সরের খড়গো দিয়ে চলচিত্রকে হুমকির মুখে ফেলার কোনো অধিকার এই গণতান্ত্রিক যুগের সরকারের নাই। আপনি যদি ঈমানদার মুসলিম হন মসজিদের গিয়া এশার নামাজ পড়ুন, আপনি হিন্দু হলে মন্দিরে যান, আপনি বেশি সামাজিক হৈলে বারে গিয়া মাল গিলে নাচাকুদা করেন। কিন্তু যারা পকেটের ত্রিশ টেকা খরচ কৈরা নাইট শো দেইখা একটা আকিজ বিড়ি ধরাইয়া বাড়ি ফেরে তাদের নিয়া আপনাদের এতো টেনশন কেনো? এই প্রশ্নের কোনো জবাব ঐসব দেড় বেটারি শুশীল, তিন টেকার ফকিন্নি বুদ্ধিজীবি নামের চুতিয়া কিংবা তথাকথিত আঁতেল রবীন্দ্রনাথের ভক্ত গণ্ডারগুলোর কাছে নাই। কখনো ধর্মের দোহাই, কখনো সমাজের দোহাই কখনো সংস্কৃতি কিংবা আরো কতো আবেগের দোহাই দিয়ে ক্ষতিগ্রস্ত করা হচ্ছে একটি সমাজকে।

একটু খেয়াল রাখেন সামাজিক কর্ম করার পর আপনারা যখন ঘরের পর্দাটা টেনে নিয়ে কম্পিটার-ল্যাপটপ-ট্যাব ওপেন করে Sunny Leone, Sasha Grey, Remy LaCroix, Ava Addams কিংবা Bobbi Eden দের নিয়া বসেন তখন আপনাদের দৃষ্টিতে অসমাজিক লোকগুলো পর্দা সরাইয়া উঁকি দেয়না। সো মুখে অসামাজিকতার বুলি উড়াইয়েন না। চামে চুমে প্রগতিশীলতা ফলাইতে গিয়া দেশের মৃতপ্রায় চলচিত্র শিল্পকে ধ্বংসের মুখে ঠেইলা দিয়েন না। এই মিউজিক ভিডিওটা অনেক কষ্ট থিকা শেয়ার দিলাম। ভারতের কিছু সিনেমা যখন দেখি রাগে গা জ্বইলা উঠে। মনে হয় আমার দেশ কেনো এইডা পারেনা। আখাম্বা বলদের বাচ্চারা বলে ভারতীয় সিনেমা আনলে কম্পিটিশন তৈরি হবে। তখন তাদের বলতে ইচ্ছে করে রাস্তার পাশে যদি স্ট্রিপ ডান্স হয় তাইলে মানুষ ঐটা দেখবে নাকি থিয়েটারে নাটক দেখতে যাবে? অবশ্যই প্রথমটাতেই বেশি লোক যাবে।

আপনাদের ভুলে গেলে চলবে না দেশে শুশীলদের সংখ্যা দিনদিন কমছে, দেশে মানুষের সংখ্যাই বাড়তির দিকে। ঠাকুরীয় সঙ্গীত, লালনের ভাবের টান কিংবা হুদাই ক্লাসিক ফলাতে গিয়া প্যা প্যা ম্যা ম্যা শুইনা লোকজন ত্যক্ত বিরক্ত। নতুন প্রজন্ম নতুন কিছু দেখতে চায়। তাদের সে সুযোগ দেয়া হোক। বাঁচতে দেয়া হোক আমাদের মৃতপ্রায় চলচিত্র শিল্পকে। আর একটা কথা স্মরণ করিয়ে দিতে চাই চলচিত্রে সেন্সর আর প্যান্টের উপর পরা আন্ডারওয়্যার পরা একই কথা

Advertisements

মন্তব্য করুন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s