Category Archives: ব্যক্তিত্ব

এ কূয়া তাজমহল থেকে কম কিসে ?

52170833শাহজাহান তার ১৪ সন্তানের জননী মমতাজের মৃত্যুর পর বানিয়েছিলেন তাজমহল। আজ পূর্ব-পশ্চিম উত্তর-দক্ষিণ সবখানে একে নিয়ে মাতামাতির অন্ত নেই। কিন্তু ইতিহাস ঘুরে ফিরে আসে, সেটার বহিঃপ্রকাশে চাই কেবলমাত্র উপযুক্ত সুযোগ। তাই টাইমস অব ইন্ডিয়া চিনিয়ে দিচ্ছে এক দলিত শাহজাহান বাপুরাও তাজনিকে। টাইমস অব ইন্ডিয়ার ভাষ্যে [His achievement may not be as colossal as that of Dashrath Manjhi, the mountain man, but his spirit is equally indomitable.] ঘৃণ্য সাম্প্রদায়িকতার বিষে বিষাক্ত মহারাষ্ট্রের এক দলিত বাপুরাও তাজনি। খরার প্রকোপে ত্রাহি ত্রাহি করতে থাকা আকালের পাড়ায় এক কূপের মালিক তাঁর স্ত্রীকে পানি তুলতে দেননি। যাচ্ছেতাই অপমান করে তাড়িয়ে দিয়েছেন। স্ত্রীর এই অপমানের শোধ নিতে কোদাল খন্তা হাতে নিয়েছিলেন তিনি। বলতে গেলে একাই পুরো কূপ খনন করেছেন বাপুরাও তাজনি। এক্ষেত্রে কমপক্ষে চার-পাঁচজনের কাজ একাই করতে হয়েছে তাঁকে। পাড়ার প্রায় ঐ কূপ থেকে পানি নিতে আসলেও তিনি কাউকে পানি নিতে বারণ করছেন না।  Continue reading এ কূয়া তাজমহল থেকে কম কিসে ?

হারাতে হলো প্রত্নতাত্ত্বিক মাইক এস্টনকেও

urlচলে গেলেন বিশিষ্ট প্রত্নতাত্ত্বিক ও টেলিভিশন ব্যক্তিত্ব মাইক এস্টন। কিছুদিন আগে যাঁর সাথে প্রায় ২০ মিনিটের মতো চ্যাট হয়েছিলো সেই ব্যক্তিটি এমন অসময়ে চলে যাবেন ভাবতেই কেমন অবাক লাগছে। এই রকম বিশ্বনন্দিত একজন প্রত্নতাত্ত্বিক হওয়া সত্ত্বেও তাঁর মধ্যে আমাদের বঙ্গদেশীয় অঘাচণ্ডি মাতবারদের মতো নাক উঁচু ভাব ছিলোনা। টুইটারে তার অনেক পোস্টে বাংলাদেশের সামান্য প্রত্নতত্ত্ব শিক্ষার্থীকে ট্যাগ করতে তার বাধেনি। তাঁর শিক্ষার্থী-সহকর্মী যাদের সাথে অনলাইনে আমার যোগাযোগ হয় প্রায় সবাই শোকে স্তব্ধ। অন্তত এই দীর্ঘকেশী প্রত্নতাত্ত্বিক ব্যক্তিত্বের সম্পর্কে তেমন কোনো হতাশাজনক বক্তব্য শুনিনাই। অন্যদিকে তিনি প্রত্নতত্ত্ব বিষয়টিকে তাঁর মূল্যবান গবেষণা দিয়ে সমৃদ্ধ করে গেছেন। বিশেষত সকল শ্রেণিপেশার মানুষের জন্য প্রত্নতত্ত্ব ছিলো তার কর্মকাণ্ডের মূল প্রতিপাদ্য। এক্ষেত্রে তাঁর কর্মকাণ্ড তাকে ছাড়িয়েছে অনেক আগেই। অক্লান্ত পরিশ্রম করে তিনি নিজেকে নিয়ে গেছেন অন্যরকম এক উচ্চতায়। Continue reading হারাতে হলো প্রত্নতাত্ত্বিক মাইক এস্টনকেও

রাতজাগা ক্ষতিকর নয় আসুন রাত জাগি

1125759003_3580Germany, Emmering, Teenage girl sleeping in computer labসৃষ্টিশীল মানুষের সাথে রাতের ঘূম আর সমাজের বৈরিতা চিরকাল। এই কথা কারোক্ষেত্রে জন্মলগ্ন থেকে ধ্রুব সত্য হয়ে যায় কেউবা ভাব ধরেন। তবুও এক ধরণেরঅবস্থা তৈরি হয়েছে যেখানে মেনে নিতেই হচ্ছেসৃষ্টিশীলতা আর নিয়মানুবর্তিতা দুটি ভিন্ন গ্রহের উপমা। আমরা যারা রাত জেগে কাজ করি পরিবারের সবার তাদের নিয়ে চিন্তার অন্ত নেই। কিন্তু এবার তাদের চিন্তাথেকে মুক্তির পথ বাতলে দিয়েছে মাদ্রিদ বিশ্ববিদ্যালয়ের একটি বিশ্ব বিদ্যালয়। ডেইলি মেইলে প্রকাশিত একটি নিবন্ধে এমনি দেখতে পেলাম। সেখানে মানুষের রাত জাগা নিয়ে এক চাঞ্চল্যকর তথ্য দিয়েছেন উদ্দিষ্ট গবেষকগণ। Continue reading রাতজাগা ক্ষতিকর নয় আসুন রাত জাগি

প্লাজমা ফিজিক্স এবং বাংলাদেশী বিজ্ঞানী অধ্যাপক ড. এ এ মামুন

news1369134468956791st_159_tস্নাতকোত্তর পরীক্ষার ফল প্রকাশের পরপরই মামুন বাংলাদেশ পরমাণু শক্তি কমিশনে বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা হিসেবে যোগদান করেন। সেখানে তিনি বাংলাদেশের আরেক প্লাজমা পদার্থবিদ ড. মফিজউদ্দিন আহমেদের সঙ্গে ১৯৯৩’র মার্চ পর্যন্ত প্লাজমা গবেষণা চালিয়ে যান। অধ্যাপক মামুন তাঁর প্লাজমা গবেষণার শুরুতেই যেমন দৃঢ় সংকল্পবদ্ধ ছিলেন উন্নততর দেশে গিয়ে উচ্চতর গবেষণা করার, ঠিক তেমনি তিনি তখন থেকেই অনড় ও দৃঢ় প্রতিজ্ঞাবদ্ধ ছিলেন নিজের দেশে ফিরে নিজের দেশে কাজ করার। আর বাংলাদেশে experimental physics এ কাজের সুযোগ কম বিধায় তিনি তখন থেকেই theoretical physics-এ গবেষণার চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত গ্রহন করেন। তারপর ১৯৯৩ সনের এপ্রিল মাসে অধ্যাপক এম. সলিমুল্লাহর উপদেশক্রমে মামুন জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে বিজ্ঞানের প্রভাষক পদে যোগদান করেন, এবং একই বৎসর সেপ্টেম্বর মাসে commonwealth scholarship (open competition)  নিয়ে Ph. D. করার জন্য যুক্তরাজ্যের St. Andrews University  চলে যান। তাঁর গবেষণার কর্মস্থল ছিল St. Andrews University  ও Rutherford Laboratory, এবং তাঁর তত্বাবধায়ক ছিলেন দুই বিশ্ব-বিখ্যাত প্লাজমা পদার্থবিদঃ Prof. R. A. Cairns (St. Andrews University) ও Dr. R. Bingham (Rutherford Applied Laboratory, Oxford)।  অধ্যাপক মামুনের Ph. D. Thesis এর মূল উদ্দেশ্য ছিল Viking space craft ও Freja satellite কর্তৃক observed  বিশেষ nonlinear structures এর theoretical ব্যাখ্যা প্রদান। অধ্যাপক মামুন অত্যন্ত সুন্দরভাবে এবং সাফল্যের সাথে (successfully) এর  theoretical ব্যাখ্যা প্রদান করেন। প্রায় দুই বৎসরের মধ্যে তাঁর Ph. D. Thesis এর কাজ সম্পন্ন করেন। তাঁর Ph. D গবেষণাকর্ম কয়েকটি প্রবন্ধাকারে আমেরিকার অতি উচ্চমানের জার্নালে প্রকাশিত হয় ও সেই সঙ্গে এ গবেষণাকর্ম বিশ্বের সমগ্র plasma community কর্তৃক বহুল প্রশংসিত হয়। অধ্যাপক মামুনের এ গবেষণাকর্মের উপর ভিত্তি করে বিশ্বের বিভিন্ন প্লাজমাবিদগণ বিভিন্ন জার্নালে দুই শতাধিক প্রবন্ধ প্রকাশ করেন। এখনও তাঁর এ গবেষণাকর্মকে ভিত্তি করে প্রচুর প্রবন্ধ প্রকাশিত হচ্ছে। আরো পড়ুন…. Continue reading প্লাজমা ফিজিক্স এবং বাংলাদেশী বিজ্ঞানী অধ্যাপক ড. এ এ মামুন

শিল্পাচার্য জয়নুলের নবান্ন ক্রল পেইন্টিং

image_34664পেইন্টিং বিভিন্ন ধরণের হয়। এগুলোর নামকরণের ক্ষেত্রেও তাই ভিন্নতা লক্ষ  করা যায়। ক্রল পেইন্টিং নিয়ে বিস্তৃত আলোচনা করা একজন প্রত্নতত্ত্বের শিক্ষার্থীর জন্য  বেশ কঠিন। তবুও জয়নুলের নাম শোনর পর থেকে অনেক আগ্রহ জন্মেছিলো এই বিষয়টি কি একটু জানবো। আর জানলে তা আগ্রহীদের জন্য শেয়ার করবো। আভিধানিকভাবে ক্রল পেইন্টিংকে সঙ্গায়িত করার ক্ষেত্রে অনেকগুলো অভিধা লক্ষ করা যায়। এখানে প্রকারতাত্ত্বিক ও গাঠনিক দিককে অনেক বেশি গুরুত্ব দেয়া হয়ে থাকে। বিশেষ করে কি ধরণের উপাদানের উপর স্ক্রল অংকন করা হবে। আর তা আঁকতে কি ধরণের রঞ্জক উপাদান ব্যবহৃত হবে তা অবস্থা বিশেষে অনেক বেশি গুরুত্ববহ হয়ে ওঠে।  আমরা অভিধানের পাতায় দৃষ্টি দিয়ে পাই……… Continue reading শিল্পাচার্য জয়নুলের নবান্ন ক্রল পেইন্টিং

একজন প্রত্নতাত্ত্বিক আবুল কালাম মোহাম্মদ জাকারিয়ার গল্প

270512_10151105087801510_24826410_nপ্রথম আলো পত্রিকাটা বাসার ড্রয়িংরুমের ডেস্কে পড়ে থাকলেও খুলে দেখা হয় কম। কিন্তু আজকে দেখেছি। দেখেছি বলা যাবেনা অনেকটা দেখতে হয়েছে। ঘুম থেকে ওঠার পর চাচার হুংকার, পত্রিকাটা দেখ গাধারাম তোর প্রিয় ব্যক্তিকে নিয়ে লিখেছে। পাতা উল্টে দেখি দেশবরেণ্যে প্রত্নতাত্ত্বিক আবুল কালাম মো. জাকারিয়ার একটি সাক্ষাতকার ছেপেছে ওরা। ব্যাস দাত ব্রাশ করার আগেই অনেকটা দাড়িয়ে দাড়িয়ে পড়লাম পুরো সাক্ষাতকারটি। সত্যি অন্য এক জগতে চলে গেছিলাম। ভাবছিলাম এইচ.এস.সি পরীক্ষা দিয়ে অপেক্ষমান থাকার ঐ সময়টার কথা। তারপর জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রত্নতত্ত্ব বিভাগে ভর্তি হওয়া। ইতিহাস আর প্রত্নতত্ত্বের সাগরে কিভাবে ডুব দিয়েছিলাম সে কথাও আস্তে আস্তে মনে পড়ছে। কিছুক্ষণের জন্য হয়ে গেছি অন্যমানুষ। আর হবেই না কেনো !! যাঁর কাছে আর্কিওলজির হাতেখড়ি। সেই মহান মানুষটাকে দেখে অনেক ভালো লাগছে। ভাবছিলাম মুনীর চৌধুরী কি ভূল বকেছিলেন। মানুষ মরে গেলে পচে যায়, বেচে থাকলে বদলায়, কারণে অকারণে বদলায়। কিন্তু কৈ প্রিয় জাকারিয়া স্যার তো এতটুকুও বদলে যাননি। Continue reading একজন প্রত্নতাত্ত্বিক আবুল কালাম মোহাম্মদ জাকারিয়ার গল্প

আবুল কালাম মোহাম্মদ যাকারিয়া


আবুল কালাম মোহাম্মদ যাকারিয়া আবুল কালাম মোহাম্মদ যাকারিয়ার জন্ম ১৯১৮ সালের ১ অক্টোবর, ব্রাহ্মণবাড়িয়ায়। প্রাচীন পুঁথি সংগ্রহ, গবেষণা এবং প্রত্নসম্পদ অনুসন্ধান, আবিষ্কার ও সংগঠনে তিনি তুলনারহিত। এক শ ছুঁই ছুঁই বয়সেও সদা কর্মব্যস্ত।
মাসউদ আহমাদ: আপনি তো ইংরেজি সাহিত্যের ছাত্র ছিলেন এবং রেজাল্টও ভালো ছিল, প্রত্নতত্ত্বের মতো নীরস বিষয়ে উৎসাহী হলেন কীভাবে?
আবুল কালাম মোহাম্মদ যাকারিয়া: আমাদের পরিবারে পুঁথিচর্চার একটা পরিবেশ ছিল। শৈশবে দেখেছি, বাড়িতে পুঁথির বড় সংগ্রহ। আমার বাবা ছিলেন ফারসি ভাষার পণ্ডিত, তিনি পুঁথির পাঠক ও সংগ্রাহক ছিলেন। বই পড়ার প্রতি আগ্রহ ছোটবেলা থেকেই তৈরি হয়, পারিবারিক ঐতিহ্যের কারণেই বলতে পারেন। ঢাকা কলেজে পড়ার সময় প্রত্নতত্ত্ব ও ইতিহাস বিষয়ে আগ্রহ তৈরি হয় আমার। এরপর কর্মজীবনের প্রথম থেকেই আমি প্রত্নসম্পদ বিষয়ে জরিপ ও নোট নেওয়া শুরু করি। ১৯৪৬ সালে প্রভাষক হিসেবে যোগ দিই বগুড়া সরকারি আজিজুল হক কলেজে। সেই সময় নৃতত্ত্বের ওপর কাজ করছিলাম আমি। তখন Continue reading আবুল কালাম মোহাম্মদ যাকারিয়া

নিবেদিতপ্রাণ শিক্ষক ও প্রত্নতাত্ত্বিক অধ্যাপক ড. আইয়ুব খান

প্রত্নতাত্ত্বিক, গবেষক, ইতিহাসবিদ ও প্রত্নতত্ত্ব বিভাগ জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের সম্মানিত চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. আইয়ুব খান আর নেই।  বছর খানিক পূর্বে ছিনতাইকারীদের গুলিতে আহত হয়ে দীর্ঘদিন রোগভোগের পর অবশেষে বিভাগে ক্লাস নেয়া শুরু করেছিলেন। কিছুদিন পূর্বে বিভাগের চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্বভার গ্রহণ করেন। চিকিৎসাধীন অবস্থায় গত ২৫ অক্টোবর, মঙ্গলবার রাত ১০:৩০টায় ঢাকায় হার্ট ফাউণ্ডেশন হাসপাতালে তিনি ইন্তিকাল করেন। (ইন্নালিল্লাহে ওয়া ইন্নাইলাইহি রাজিউন) মৃত্যুর আগে তিনি হৃদরোগে আক্রান্ত হয়েছিলেন। অধ্যাপক ড. আইয়ুব খান ১৯৬৪ সালের ৩০ সেপ্টেম্বর টাঙ্গাইল জেলার কালিহাতী উপজেলার পাইকরা ইউনিয়নের গোলরা গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। ১৯৭৯ সালে Continue reading নিবেদিতপ্রাণ শিক্ষক ও প্রত্নতাত্ত্বিক অধ্যাপক ড. আইয়ুব খান